নয়্যারের ফেরার ম্যাচে জার্মানির পরাজয় - প্রিয়লেখা

নয়্যারের ফেরার ম্যাচে জার্মানির পরাজয়

Sanjoy Basak Partha
Published: June 3, 2018

জার্মানির চূড়ান্ত দল ঘোষণা করতে আর বেশিদিন বাকি নেই। তার আগে কোচ জোয়াকিম লো দলের সেরা গোলকিপার ম্যানুয়েল নয়্যারকে একটু বাজিয়ে দেখতে চেয়েছিলেন। নয়্যার তাঁর পরীক্ষায় বেশ ভালোভাবে উৎরে গেলেও পার পায়নি জার্মানি। বিশ্বকাপের আগে প্রতিবেশী অস্ট্রিয়ার কাছে প্রস্তুতি ম্যাচে বর্তমান বিশ্বকাপজয়ীরা হেরে গেছে ২-১ গোলে। অস্ট্রিয়ার কাছে ৩২ বছরের মধ্যে এটি জার্মানির প্রথম হার।

বাঁ পায়ে হেয়ারলাইন ফ্র্যাকচার থেকে সেরে ওঠা নয়্যার গত সেপ্টেম্বরের পর এই প্রথম কোন প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে খেলতে নেমেছিলেন। পুরো সময় কোন অস্বস্তি ছাড়া খেলেছেনও। কিন্তু অনেক নিয়মিত মুখকে বিশ্রামে রেখে খেলতে নামা জার্মানি নিজেদের নিয়মিত অধিনায়ককে ফিরে পেয়েও অনুপ্রাণিত হতে পারেনি। ব্রাজিলের কাছে ১-০ গোলে হারের পর এবার অস্ট্রিয়ার কাছেও হারলো বিশ্বকাপের অন্যতম ফেভারিট এই দলটি।

টনি ক্রুস, ম্যাটস হামেলস, জেরোম বোয়াটেং ও থমাস মুলারদের মতো অটোমেটিক চয়েসদের ছাড়াই অস্ট্রিয়ার মুখোমুখি হয়েছিলেন লো। প্রথমার্ধে তবুও বেশ দাপটের সাথেই খেলেছে জার্মানরা, ১১ মিনিটের মাথায় মেসুত ওজিলের গোলে এগিয়েও যায় দলটি। পিঠের ইনজুরি থেকে সেরে ওঠা আর্সেনাল মিডফিল্ডারের এটি ছিল চার সপ্তাহ পরে প্রথম ম্যাচ। ৭৬ মিনিটে জুলিয়ান ড্র্যাক্সলারকে জায়গা ছেড়ে দিয়ে উঠে যাওয়ার আগে বেশ ভালোই খেলেছেন ওজিল।

২০ মিনিটে লিড দ্বিগুণ করতে পারতো জার্মানরা, যদি না জুলিয়েন ব্র্যান্ডটের দুর্বল শট ফিরিয়ে দিতেন অস্ট্রিয়ান গোলকিপার।

ম্যাচের ১৪ মিনিটে নিজের প্রথম সেভ করেন নয়্যার, অস্ট্রিয়া মিডফিল্ডার আলেসান্দ্রো স্কোয়েপফের শট ঝাঁপিয়ে পড়ে ফিরিয়ে দিয়ে। এরপর ৩১ মিনিটে ফ্লোরিয়ান গ্রিলিটশকেও গোলবঞ্চিত করেছেন তিনি।

কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে আর গোলপোস্ট অক্ষত রাখতে পারেননি তিনি। ৫৩ মিনিটে ডেভিড আলাবার কর্ণার থেকে ভলিতে ব্যাক পোস্টে বল জালে জড়ান মার্টিন হিন্টেরেগার।

মিনিট দুয়েক পরেই ক্লোজ রেঞ্জ থেকে মার্কো আর্নাউটোভিচের শট ফিরিয়ে দিলেও ৬৯ মিনিটে দুর্দান্ত দলগত প্রচেষ্টায় করা অস্ট্রিয়ার গোল ফেরানোর সাধ্য ছিল না জার্মান গোলকিপারের। প্রথমার্ধে ঠেকিয়ে দিলেও এবার আর স্কোয়েপফকে আটকাতে পারেননি নয়্যার।

স্বভাবতই ম্যাচ শেষে নিজের হতাশার কথা জানিয়েছেন লো, ‘এই ফলাফলে আমি একদমই খুশি নই। নিজেদের অনেক পরিকল্পনাকেই ঠিকঠাক কাজে লাগাতে পারিনি আমরা। বারবার বলের নিয়ন্ত্রণ হারিয়েছি আমরা, যেখানে কি না আমরা অনেকগুলো গোলের সুযোগ সৃষ্টি করতে পারতাম। আমাদের আজকের খেলা মোটেও ভালো ছিল না। আগামী দুই সপ্তাহে অনেক কাজই করতে হবে আমাদের।’

অপরদিকে নতুন কোচ ফ্রাঙ্কো ফোদার অধীনে পাঁচ ম্যাচে এটি অস্ট্রিয়ার পঞ্চম জয়। বিশ্বকাপে উঠতে ব্যর্থ হওয়ার জার্মানির বিপক্ষে এমন জয়ে উল্লসিত জয়সূচক গোল করা স্কোয়েপফ, ‘জয় মানেই বিশেষ কিছু, তার উপর সেটা যদি হয় জার্মানির মতো দলের বিপক্ষে। প্রথমার্ধে বেশ নিষ্ক্রিয় ছিলাম আমরা, কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে আমরা ভালো খেলেছি।’

এদিকে নয়্যারের বিপক্ষে এখনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে না পারলেও তাঁর পারফরম্যান্সের প্রশংসা করেছেন লো, ‘দীর্ঘ বিরতির পর এটা বেশ ভালো কামব্যাকই ছিল বলতে হবে। দুই তিনটা দারুণ সেভ করেছে ও।’

২০১৬ সালের অক্টোবরের পর এই প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচে মাঠে নামা নয়্যার বিশ্বকাপের চূড়ান্ত দলে জায়গা পাবেন কি না, সে ব্যাপারে এখনো সিদ্ধান্ত নেননি লো, ‘আমি আগামীকাল ম্যানুয়েলের সাথে কথা বলবো। এই সপ্তাহে ম্যাচ কিংবা অনুশীলন, কোথাও ওর কোন সমস্যা হয়নি।’

২০১৮ সালে এই নিয়ে তিনটি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলে তিনটিতেই জয়বঞ্চিত থাকলো জার্মানি। বিশ্বকাপের আগে আগামী শুক্রবার নিজেদের শেষ প্রস্তুতি ম্যাচটা জার্মানরা খেলবে সৌদি আরবের বিপক্ষে। ১৭ জুন মেক্সিকোর বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে নিজেদের পঞ্চম শিরোপা জয়ের মিশন শুরু করবে জার্মানরা। ‘এফ’ গ্রুপে তাদের বাকি দুই প্রতিপক্ষ সুইডেন ও দক্ষিণ কোরিয়া।

Loading...