গ্রীষ্মের ফল দিয়ে ত্বকের যত্ন - প্রিয়লেখা

গ্রীষ্মের ফল দিয়ে ত্বকের যত্ন

Milky Reza
Published: May 13, 2019

গ্রীষ্মকালে রোদের প্রচন্ড তাপ, সূর্যের অতি বেগুনী রশ্মি, বাইরের ধূলা বালি ও নগর জীবনের দূষিত পরিবেশের প্রভাব ত্বককে ক্ষতিগ্রস্হ করে। মুখের ও হাতের ত্বকে অসম রঙ, শুষ্ক ভাব, অমসৃনতা, ছোপ ছোপ দাগ, কুঁচকে যাওয়া, চোখের নিচে কালো হয়ে যাওয়া এধরনের সমস্যার সম্মুখীন হই আমরা। এ থেকে পরিত্রানের উপায় খুঁজি প্রতিনিয়ত। আমরা অনেকেই বিভিন্ন ধরনের সমাধান জানি তবে নাগরিক জীবনের ব্যস্ততায় আমরা সবকিছু করে উঠতে পারিনা। তাই হাতের কাছে থাকা উপাদান দিয়ে, কম সময়ে খুব সহজে কিভাবে ত্বকের ক্ষতিপূরণ সম্ভব, তেমন সমাধানই আমরা চাই।

আসলে সমাধান অনেক সময় সমস্যার মধ্যেই লুকায়িত থাকে। অর্থাৎ গ্রীষ্মে যেসব ঋতুকালীন ফল সহজে পাওয়া যায় তা হলো তরমুজ, বাংগি, আম, কাঁঠাল। আর এসব ফল দিয়েই গ্রীষ্মে ত্বকের যত্ন সম্ভব। প্রতিটিই খাওয়া এবং ব্যবহার করা দুভাবেই ত্বকের জন্য খুব উপকারী।

ব্যবহারের ক্ষেত্রে প্রথমেই তরমুজের কথা বলি……..

উপকারিতাঃ-

তরমুজ ত্বককে কোমল ও উজ্জ্বল করে। দাগ দূর করে। অসম রঙ দূর করে মসৃনতা নিয়ে আসে।

যেভাবে ব্যবহার করবেনঃ-

বাইরে থেকে ফিরে পরিষ্কার ঠান্ডা পানি এবং কোমল একটি বিউটি সোপ বা ফেইস ওয়াশ দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে ধুয়ে নিন। বিচি ফেলে তরমুজ ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে নিন। এরপর একটি পার্লার টিস্যু মুখে রেখে পেন্সিল দিয়ে চোখ, মুখ, নাক এবং ঠোঁটের জায়গাটা চিহ্নিত করে কাইচি দিয়ে কেটে একটি মুখোশাকার তৈরী করে নিন। চোখ, মুখ, নাক এবং ঠোঁটের জায়গাটা ফাঁকা রাখাই এর উদ্দেশ্য। এরপর মুখোশটি মুখে ঠিকমতো বসিয়ে ব্লেন্ড করে রাখা তরমুজ হাতের সাহায্যে পুরো মুখোশটিতে লাগিয়ে একদম ভিজিয়ে নিন। এভাবে বিশ মিনিট চোখ বন্ধ করে শুয়ে থাকুন। এতে করে আপনার ত্বকে তরমুজের গুনাগুন শোষিত হবে। এরপর মুখোশটি তুলে পরিষ্কার ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এভাবে কয়েকদিন করতে পারলেই ত্বকের অসম রঙ, কালো রঙ, কুঁচকানো ভাব এবং রুক্ষতা দূর হবে।

বাঙ্গির ব্যবহার…….

উপকারিতাঃ- ত্বক কোমল করে, দাগ হালকা করে, ত্বক উজ্জ্বল করে, চোখের পাশের কালো দাগ দূর করে।

যেভাবে ব্যবহার করবেনঃ- কয়েক টুকরা বাঙ্গি অল্প পানি দিয়ে ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে নিন। এবার এই ব্লেন্ড করা বাঙ্গি কিউব আইস বক্সে ঢেলে ফ্রিজে রাখুন।

এবার বাইরে থেকে ফিরে ফ্রেশ হবার পরে একটি কিউব নিয়ে ২০ মিনিট ধরে সারা মুখে ঘষুন এবং পরিষ্কার ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এভাবে কয়েকদিন করলে নিশ্চিত উপকার পাবেন।

 আমের ব্যবহার…….

উপকারিতাঃ- ত্বক মসৃন করে, গভীর থেকে পরিষ্কার করে, দাগ হালকা করে, উজ্জ্বল করে, কোমল করে, রঙের সমতা ফিরিয়ে আনে।

যেভাবে ব্যবহার করবেনঃ- ত্বকে আম ব্যবহার করা খুব সহজ। গোসলের আগে পাকা আম কেটে হাতে চটকে নিয়ে মুখে, গলায়, হাতে ২০ মিনিট ধরে ম্যাসাজ করে গোসল করে নিন।

মাত্র কয়েকদিনেই পার্থক্য চোখে পড়বে।

 

 

 

কাঁঠালের ব্যবহার…….

উপকারিতাঃ- ত্বক পরিষ্কার করে, ত্বক টানটান করে, কোমল করে এবং দাগ হালকা করে।

যেভাবে ব্যবহার করবেনঃ- আমের মতোই কষ এড়িয়ে পাকা কাঁঠাল চটকে নিয়ে মুখে, হাতে, গলায় বিশ মিনিট ম্যাসাজ করে গোসল করে নিন।

এছাড়াও গ্রীষ্মকালে প্রচুর পানি পান করুন। শরবত পান করুন। ঋতুকালীন ফল বেশী করে খাবেন। এবং অন্তত ছয় ঘন্টা অবশ্যই ঘুমাবেন।

 

 

ছবি সংগ্রহঃ ইন্টারনেট