হৃদযন্ত্রের ঝুঁকি কমাতে পারবে কফি? জেনে নিন তাহলে - প্রিয়লেখা

হৃদযন্ত্রের ঝুঁকি কমাতে পারবে কফি? জেনে নিন তাহলে

ahnafratul
Published: November 14, 2017

আমাদের মাঝে অনেকেই আছেন যারা কফি খেতে ভালোবাসি কিংবা কফি না খেলে মনে হয় দিনটা যেন বৃথা গেল। কফি খাবার কিন্তু উপকারিতাও আছে। ভাবছেন কি হতে পারে? প্রিয়লেখার পাতায় পড়ুন সপ্তাহে অন্তত একদিন কফি খাবার উপকারিতা কিঃ
নতুন একটি গবেষণায় পাওয়া গিয়েছে, সপ্তাহে অন্তত এক কাপ কফি খেলে স্ট্রোক কিংবা হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হবার ঝুঁকি অনেক কমিয়ে দেয়। এই গবেষণাটির নাম দেয়া হয়েছে ‘ফারমিংহাম হার্ট স্টাডি’। প্রায় ২৭৫০জন এই গবেষণায় অংশগ্রহণ করেন এবং তাদের প্রায় ৩৪ বছরের কফি পান করার ফলাফল এই গবেষণার মাধ্যমে প্রকাশ করা হয়েছে।
এই গবেষণার ফলস্বরুপ গবেষকরা বলছেন, প্রতি সপ্তাহে একজন কফিপানকারী যে পরিমাণ কফি পান করেন, তার স্ট্রোক হবার পরিমাণ ৭ শতাংশ হ্রাস পায়, হার্ট ফেইলিওর হবার সম্ভাবনা ৮ শতাংশ হ্রাস পায়। এই তুলনাটি করা হয়েছে যারা একেবারেই কফি পান করেন না, তাদের সাথে। এর আগেও বেশ কিছু গবেষণায় বলা হয়েছে যে কফি খাবার নানা সুফল রয়েছে। তবে কিছুটা ব্যতিক্রম রয়েছে।


পূর্বে যে গবেষণা করা হয়েছিল, তাতে কখনোই বলা হয় নি যে কফি পান করবার ফলে হার্ট ফেইলিওর কিংবা স্ট্রোক হবার মত ঘটনা হ্রাস পেতে পারে। পরিবর্তে বিশাল অঙ্কের সব ডাটা এবং উন্নতমানের প্রাযুক্তিক সাহায্য নেয়া হয়েছিল। বিজ্ঞানীরা আশা করছেন এই গবেষণার ফলে এসব রোগ হ্রাসকারী আরো নানা স্বাস্থ্যকর উপাদানের খোঁজ পাওয়া যাবে।
কলোরাডোর ইউনিভার্সিটি অব কলোরাডো অব মেডিসিনের অধ্যাপক ডক্টর ডেভিড কাও বলেন,
“যন্ত্রের সাহায্যে এমন কোন কিছুর উপকার পাওয়া আমাদের জন্য সত্যিই অনেক দরকার। হয়ত ভবিষ্যতে আমরা ক্যান্সার, এইডসের মত আরো নানা মারণব্যাধীর চিকিৎসা কিভাবে করতে হয়, তা সম্পর্কে জানতে পারব।”

ডেভিড কাও আরো উল্লেখ করেন যে একদল নিবেদিতপ্রাণ বিজ্ঞানী এখনো কাজ করে যাচ্ছেন তাদের প্রাপ্ত ডাটা থেকে। আনন্দের খবর হচ্ছে, গবেষকেরা আরো বড় একটি কম্পিউটার তৈরি করছেন, যার সাহায্যে তারা ভালোভাবে এই গবেষণা কর্মটি সম্পন্ন করতে পারবেন। বিভিন্ন ধরণের কফি, তাদের পরিমাণ ও মাত্রা কতটুকু একজন পানকারীর এসব দূর্ঘটনা হ্রাস করতে সাহায্য করবে, তা গণিতের সাহায্যে বের করবে এই কম্পিউটার।
তবে ‘কারণ ও প্রভাব’ সম্পর্কিত খুব বেশি তথ্য এখনই প্রকাশ করতে চাচ্ছেন না বিজ্ঞানীরা। তাদের দরকার আরো প্রচুর সময় ও গবেষণা। কতটুকু মাত্রায় কফি খাওয়া উচিত, সে সম্পর্কে এখন গবেষণা করছেন বিজ্ঞানীরা। আমরা একটি ভালো খবরের আশা করতেই পারি।
কফি পান করবার উপকারিতা সম্পর্কে তো জানলেন। তবে একইসাথে আপনাদের আরো কিছু বিষয় খেয়াল রাখতে হবে। আর তা হচ্ছে, মাত্রাতিরিক্ত কফি পান করা শরীরের জন্য ক্ষতিও বয়ে আনতে পারে। নিজের শরীরকে ঠিক রাখুন, স্বাস্থ্য সচেতন হোন।