হুমায়ূন আহমেদের সেরা কিছু উক্তি - প্রিয়লেখা
হুমায়ূন আহমেদের সেরা কিছু উক্তি

হুমায়ূন আহমেদের সেরা কিছু উক্তি

Sanjoy Basak Partha
Published: November 13, 2017

একটি প্রজন্মের মধ্যে বই পড়ার অভ্যাস তৈরি করেছিলেন তিনি। বইয়ের বাজারে যখন ভারতীয় লেখকদের দাপটে বাংলাদেশি কোন লেখকের বই পাওয়া ছিল মুশকিল, সেই বাজার নিজের লেখনী দিয়ে দখল করেছিলেন তিনি। হুমায়ূন আহমেদ কেবল একটি নাম নয়, হুমায়ূন আহমেদ একটি আবেগের নাম, ভালবাসার নাম। মৃত্যুর পরেও তাই তিনি আজও সমান জনপ্রিয় আমাদের হৃদয়ে, এখনো কোটি বাঙ্গালির প্রাণে জীবিত হয়ে আছেন তাঁর লেখা দিয়ে।  প্রয়াত  লেখককে  শ্রদ্ধাঞ্জলি জানাতে প্রিয়লেখার পক্ষ থেকে হুমায়ূন আহমেদের সেরা কিছু উক্তি পাঠকদের উদ্দেশ্যে তুলে ধরা হল।

  • ‘ভুলে যেতে পারাই ভাল। যে মানুষ কোন কিছু ভুলতে পারে না, সে শেষ পর্যন্ত পাগল হয়ে যায়’- কবি; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘যা ইচ্ছা করে তা করা যায় না। মানুষ চলে অনিচ্ছার পথে। তাকে বাধ্য হয়ে চলতে হয়’- যদিও সন্ধ্যা; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘অতিরিক্ত রূপবতীরা বোকা হয়, এটা জগতের স্বতঃসিদ্ধ নিয়ম’- হিমু রিমান্ডে; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘যে প্রেম এমনি এমনি আসে, প্রেম করার জন্য ত্যাগ স্বীকার করতে হয় না, ওই প্রেমের প্রতি আকর্ষণ থাকে না’- আমার ছেলেবেলা; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘ভালবাসার মানুষের সাথে বিয়ে না হওয়াটাই বোধহয় ভাল। বিয়ে হলে মানুষটা থাকে, ভালোবাসা থাকে না। আর যদি বিয়ে না হয় তাহলে হয়তোবা ভালোবাসা থাকে, শুধু মানুষটাই থাকে না। মানুষ এবং ভালোবাসা এই দুইয়ের মধ্যে ভালোবাসাই হয়তো বেশি প্রিয়’- কোথাও কেউ নেই; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘মানুষের স্বভাব হল, কেউ যখন ভালোবাসে তখন নানান কর্মকান্ড করে সেই ভালোবাসা বাড়িয়ে দিতে ইচ্ছা করে, আবার কেউ যখন রেগে যায় তখন তার রাগটাও বাড়িয়ে দিতে ইচ্ছা করে’- আঙুল কাটা জগলু; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘কেউ কারোর মত হতে পারে না। সবাই হয় তার নিজের মত। তুমি হাজার চেষ্টা করেও তোমার চাচার বা বাবার মত হতে পারবে না। সব মানুষই আলাদা’- অপেক্ষা; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘যে মানব সন্তান ক্ষুদ্র কামনা জয় করতে পারে সে বৃহৎ কামনাও জয় করতে পারে’- দরজার ওপাশে; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘শিকল দিয়ে কাউকেই বেঁধে রাখা হয় না। তারপরেও সব মানুষই কোনও না কোনও সময় অনুভব করে তার হাত-পায়ে কঠিন শিকল । শিকল ভাঙতে গিয়ে সংসার বিরাগী গভীর রাতে গৃহত্যাগ করে । ভাবে, মুক্তি পাওয়া গেল । দশতলা বাড়ির ছাদ থেকে গৃহী মানুষ লাফিয়ে পরে ফুটপাতে । এরা ক্ষণিকের জন্য শিকল ভাঙার তৃপ্তি পায়’- মৃন্ময়ী; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘হাসিতে খুব সহজেই মানুষকে চেনা যায়। সব মানুষ একই ভঙ্গিতে কাঁদে, কিন্তু হাসার সময় একেক জন একেক রকম করে হাসে’- ময়ূরাক্ষী; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘ভালোবাসা আর ঘৃণা আসলে একই জিনিস। একটি মুদ্রার এক পিঠে “ভালোবাসা” আরেক পিঠে লেখা ঘৃণা। প্রেমিক প্রেমিকার সামনে এই মুদ্রা মেঝেতে ঘুরতে থাকে। যাদের প্রেম যতো গভীর তাদের মুদ্রার ঘূর্ণন ততো বেশি। এক সময় ঘূর্ণন থেমে যায় মুদ্রা ধপ করে পড়ে যায়। তখন কারো কারোর ক্ষেত্রে দেখা যায় “ভালোবাসা” লেখা পিঠটা বের হয়েছে, কারো কারো ক্ষেত্রে ঘৃণা  বের হয়েছে। কাজেই এই মুদ্রাটি যেন সবসময় ঘুরতে থাকে সেই ব্যবস্থা করতে হবে। ঘূর্ণন কখনো থামানো যাবে না’- দাঁড়কাকের সংসার কিংবা মাঝে মাঝে তব দেখা পাই; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘I Love You যত সহজে বলা যায়, আমি তোমাকে ভালোবাসি তত সহজে বলা যায় না’- কবি; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘বড় বোকামিগুলো বুদ্ধিমান মানুষেরাই করে’- আঙুল কাটা জগলু; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘বিবাহ এবং মৃত্যু এই দুই বিশেষ দিনে লতা-পাতা আত্মীয়দের দেখা যায়। সামাজিক মেলামেশা হয়। আন্তরিক আলাপ আলোচনা হয়’- একজন হিমু কয়েকটি ঝি ঝি পোকা; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘বিপদ যখন আসে একটার পর একটা আসে। বিপদেরা পাঁচ ভাই বোন। এদের মধ্যে খুব মিল। এই ভাইবোনেরা কখনো একা কারো কাছে যায় না। প্রথমে একজন যায়, তারপর তার অন্য ভাইবোনেরা উপস্থিত হয়’- এই মেঘ, রৌদ্রছায়া; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘একজন মানুষকে সত্যিকারের জানার উপায় হচ্ছে তার স্বপ্নটা জানা’- কবি; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘মানুষকে ঘৃণা করার অপরাধে কখনো কাউকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়নি, অথচ মানুষকে ভালোবাসার অপরাধে অতীতে অনেককেই হত্যা করা হয়েছে। ভবিষ্যতেও হয়তো হবে’- সম্রাট; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘গল্প উপন্যাসের সুখ-দুঃখে যারা কাতর, তারা সাধারণত নিজেদের সুখ দুঃখের ব্যাপারে উদাসীন হয়’- এইসব দিনরাত্রি; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘বাঙালিকে বেশি প্রশংসা করতে নেই। প্রশংসা করলেই বাঙালি এক লাফে আকাশে উঠে যায়। আকাশে উঠে গেলেও ক্ষতি ছিল না- আকাশ থেকে থুথু ফেলা শুরু করে’- কুটু মিয়া; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘আমাদের সমস্যা হচ্ছে আমাদের যখন গুছিয়ে কথা বলা দরকার তখন টেলিগ্রাফের ভাষায় কথা বলি। আর যখন সার সংক্ষেপ বলা দরকার তখন পাঁচশ পৃষ্ঠার উপন্যাস শুরু করি’- পুফি; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘যে মানুষ নিঃশব্দে হাসে তাহার বিষয়ে খুব সাবধান। দুই ধরণের মানুষ নিঃশব্দে হাসে- অতি উচ্চ স্তরের সাধক এবং অতি নিম্নশ্রেণির পিশাচ চরিত্রের মানুষ’- তোমাদের এই নগরে; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘রিকশায় চড়ার একটা রাজকীয় ব্যাপার আছে। মাথা সামান্য উঁচু করলেই আকাশ দেখতে পাওয়া যায়’- কবি; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘মানুষই একমাত্র প্রাণী, যে পুরোপুরি সফল জীবন পার করার পরেও আফসোস নিয়ে মৃত্যুবরণ করে’- দেয়াল, হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘মানুষের সৌন্দর্য আশেপাশের সবকিছু নিয়ে। মানুষ কখনো একা একা সুন্দর হয় না’- কবি; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘আলো যেমন চারপাশ আলো করে তুলে তেমনি একজন পবিত্র মানুষও তার চারপাশ আলো করে তুলবেই’- পারাপার; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘মানুষ যখন হাসে তখন তার সঙ্গে সমস্ত পৃথিবী হাসে। কিন্তু সে যখন কাঁদে, তার সঙ্গে আর কেউ কাঁদে না। কাঁদতে হয় একা একা’- তোমাকে; হুমায়ূন আহমেদ।
  • ‘সময় নেতা তৈরি করে। ঠিক সময়ে ঠিক নেতা এই কারণেই বের হয়ে আসে’- চাঁদের আলোয় কয়েকজন যুবক; হুমায়ূন আহমেদ।