স্বপ্নের ‘লা ডেসিমা’ জিতলেন নাদাল - প্রিয়লেখা

স্বপ্নের ‘লা ডেসিমা’ জিতলেন নাদাল

CIT-Inst
Published: June 11, 2017

রাফায়েল নাদাল রিয়াল মাদ্রিদের ঘোরতর সমর্থক। প্রিয় ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ‘লা ডেসিমা’ জিতেছে আরও চার মৌসুম আগে। নিজের প্রিয় ক্লাবকে এবার অনুসরণ করলেন ‘স্প্যানিশ ম্যাটাডোর’ রাফায়েল নাদালও। টেনিস ইতিহাসের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে কোন একটি নির্দিষ্ট গ্র্যান্ডস্লাম ১০ম বারের মত জেতার অনবদ্য রেকর্ড গড়লেন রাফায়েল নাদাল। সাথে জেতা হয়ে গেল ১৫ তম গ্র্যান্ডস্ল্যাম শিরোপাও।

শীর্ষ বাছাই অ্যান্ডি মারে বিদায় নিয়েছিলেন সেমিফাইনালে, ২য় বাছাই নোভাক জোকোভিচও বিদায় নিয়েছিলেন আগেভাগেই। ফাইনালের জন্য তাই ফেভারিট ছিলেন রাফায়েল নাদাল ও স্ট্যানিসলাস ভাভরিঙ্কাই। র‍্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে ছিলেন ভাভরিঙ্কাই, কিন্তু বাকি সকলের মত ভাভরিঙ্কারও নিশ্চয়ই জানা ছিল, এই ম্যাচের অঘোষিত ফেভারিট নাদালই।

তা ফেভারিটের মতই খেলেছেন নাদাল। ফেদেরারের স্বদেশী ভাভরিঙ্কাকে কোন প্রকার সুযোগই দেননি, একপেশে ফাইনালে ভাভরিঙ্কাকে হারিয়েছেন ৬-২, ৬-৩, ৬-১ ব্যবধানে।

ফ্রেঞ্চ ওপেনে বরাবরই নাদাল একচ্ছত্র আধিপত্যের অধিকারী। ৭৮ জয়ের বিপরীতে যেখানে মাত্র ২ হার নাদালের, সেখানে তাকে ফেভারিট না মেনে উপায় আছে কোন! ভাভরিঙ্কার বিপক্ষে মুখোমুখি লড়াইয়েও যোজন যোজন এগিয়ে ছিলেন নাদাল। এই ম্যাচের আগে ১৮ বারের মোকাবেলায় ১৫ বারই জয়ী ব্যক্তির নাম নাদাল। ক্লে কোর্টেও ৬ বার একে অপরের মুখোমুখি হয়েছিলেন এ ম্যাচের আগে, ভাভরিঙ্কা জিততে পেরেছিলেন কেবল একটি ম্যাচ। সেই ধারাবাহিকতা ধরে রেখে কালও ফ্রেঞ্চ ওপেনের ফাইনালে ভাভরিঙ্কাকে সহজেই হারিয়েছেন ক্লে কোর্টের অবিসংবাদিত সম্রাট নাদাল।আর এই জয়ের মাধ্যমেই অমরত্বের পথে এক ধাপ এগিয়ে গেলেন এই স্প্যানিশ সুপারস্টার। মোট গ্র্যান্ডস্লাম সংখ্যায় এখনো রজার ফেদেরারের চেয়ে তিন ধাপ পিছিয়ে আছেন, কিন্তু দশমবারের মত ফ্রেঞ্চ ওপেন জিতে এমন এক রেকর্ড গড়ে ফেলেছেন, যা কোনোদিন কেউ ভাঙ্গতে পারবে কিনা, সন্দেহ আছে সেটি নিয়েও। কোন একটি নির্দিষ্ট গ্র্যান্ডস্লাম জয়ের সংখ্যাকে দ্বিতীয় অঙ্কে নিয়ে যাওয়া প্রথম পুরুষ খেলোয়াড় যে হয়ে গেলেন ঐতিহাসিক এই জয়ের মধ্য দিয়ে!

ফ্রেঞ্চ ওপেন ও রাফায়েল নাদালের মৈত্রীর কথা অজানা নয় কারোরই। স্বয়ং রজার ফেদেরার পর্যন্ত নাদালের দাপটে ফ্রেঞ্চ ওপেন জিততে পারেননি বহু বছর! ২০০৫ সালে নিজের প্রথম ফ্রেঞ্চ ওপেনে অংশ নিয়েই আর্জেন্টিনার মারিয়ানো পুয়ের্তাকে হারিয়ে যেতেন প্রথম ফ্রেঞ্চ ওপেন শিরোপা। সেই যে শুরু, এরপর থেকে ফ্রেঞ্চ ওপেন ও নাদাল একে অপরের সমার্থকই হয়ে গেছেন।

২০০৬ থেকে ২০০৯ সালের মধ্যে টানা ৭ ফাইনালে হারিয়েছেন টেনিস ইতিহাসের সর্বকালের সেরা খেলোয়াড় রজার ফেদেরারকে, যার মধ্যে ফ্রেঞ্চ ওপেনেই ৩ বার। ২০০৫ থেকে ২০০৮ পর্যন্ত টানা ৪ বছর ফ্রেঞ্চ ওপেন জিতেছেন, মাঝে জিততে পারেননি ২০০৯ সালের শিরোপা। ২০১০ থেকেই আবারো চেনা ছন্দে নাদাল, ২০১৪ পর্যন্ত জিতেছেন টানা আরও ৫ টি শিরোপা!

মাঝে ইনজুরির কারণে নিজের সেরাটা দিতে পারছিলেন না, কিন্তু এই বছরই অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ফাইনালে উঠে জানান দিয়েছিলেন, ফিরে এসেছেন সেই বিধ্বংসী নাদাল। শেষ পর্যন্ত সত্যি হল সব জল্পনা-কল্পনাই। নিজের ১০ম ফ্রেঞ্চ ওপেন শিরোপা জিতে বুঝিয়ে দিলেন, ‘ফর্ম ইজ টেম্পোরারি, ক্লাস ইজ পার্মানেন্ট!’