বিপিএল টিম প্রিভিউ : শিরোপার বড় দাবিদার কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স - প্রিয়লেখা

বিপিএল টিম প্রিভিউ : শিরোপার বড় দাবিদার কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স

Sanjoy Basak Partha
Published: November 3, 2017

গত বিপিএলে ষষ্ঠ হয়ে শেষ করলেও এবার শিরোপায় চোখ রেখে নামীদামী দলই গড়েছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। স্থানীয় পারফরমারের সাথে আন্তর্জাতিক তারকা মিলে এবার বেশ ভারসাম্যপূর্ণ দল বানিয়েছে কুমিল্লা।

কুমিল্লার দল গঠনের প্রক্রিয়া দেখেই বোঝা গেছে, ২০১৬ এর ব্যর্থতা ঝেড়ে ফেলে আবারো চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লক্ষ্যে ঝাঁপাতে চায় তারা। ব্যাটিং অর্ডারের উপরের দিকে আছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের তিন ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস ও লিটন দাস। বিদেশীদের মধ্যে ফখর জামান, কলিন মানরো ও জস বাটলারের মত বিস্ফোরক ব্যাটসম্যানেরা আছেন। মিডল অর্ডার সামলানোর দায়িত্বে থাকবেন মারলন স্যামুয়েলস, শোয়েব মালিক ও ড্যারেন ব্রাভো। আর অলরাউণ্ডারের কোটা পূর্ণ করতে থাকবেন কার্যকরী দুই অলরাউন্ডার ডোয়াইন ব্রাভো ও মোহাম্মদ নবী। থাকবেন সাউথ আফ্রিকা সফরে নজর কাড়া বাংলাদেশি তরুণ সাইফুদ্দিনও।

সদ্য ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ের একে উঠে আসা পাকিস্তানের বোলার হাসান আলীও থাকবেন কুমিল্লার ক্যাম্পে। থাকবেন ফাহিম আশরাফ ও জিম্বাবুয়ের সলোমন মিরে। আর বোলিং লাইন-আপ সামলাতে থাকবেন রাশিদ খান, আল-আমিন হোসেন ও আরাফাত সানি। টিম কম্বিনেশন ঠিকভাবে কাজে লাগাতে পারলে এই দলই হয়ে উঠতে পারে শিরোপা জয়ের বড় দাবিদার।

চোখ রাখতে হবে যার উপর

কুমিল্লার ট্রাম্পকার্ড হয়ে উঠতে পারেন আফগান লেগ স্পিনার রাশিদ খান। ২০১৭ সালে টি-২০ তে এখনো পর্যন্ত ৬৭ উইকেট পেয়েছেন রাশিদ, আর কোন বোলার তার চেয়ে বেশি উইকেট পাননি এই বছর টি২০ তে। রাশিদ তার ফর্ম ধরে রাখতে পারলে প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যানদের জন্য কঠিন সময়ই অপেক্ষা করছে এবারের বিপিএলে।

কোচ:

কুমিল্লার ডাগআউটে কোচ হিসেবে থাকছেন বাংলাদেশের ঘরোয়া লেভেলের অন্যতম সফল ও জনপ্রিয় কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিন। মাঝারি মানের দল নিয়েও সাফল্য এনে দেয়ার ক্ষেত্রে  সালাউদ্দিনের জুড়ি মেলা ভার। তবে এবার দলে অনেক সুপারস্টারকে একসাথে সামলাতে হবে সালাউদ্দিনকে। স্থানীয় নবীন তরুণদেরও গড়ে তুলতে হবে অল্প সময়ের মধ্যে, যা চ্যালেঞ্জ হয়ে উঠতে পারে সালাউদ্দিনের জন্য। সালাউদ্দিনের কোচিং দক্ষতার ভালো এক পরীক্ষাই হয়ে যাবে এবারের বিপিএলে।

মাশরাফি কে মিস করবে কুমিল্লা

নিতান্তই সাধারণ এক দলকে চ্যাম্পিয়ন করার পেছনে দারুণ অবদান ছিল কুমিল্লার আগের অধিনায়ক মাশরাফি মর্তুজার। এমনকি ২০১৬ আসরে কুমিল্লার ভরাডুবি হলেও ব্যক্তিগত নৈপুণ্যে ভাস্বর ছিলেন মাশরাফি, ১৩ উইকেট নিয়ে হয়েছিলেন যুগ্মভাবে দলের সেরা বোলার। বোলার মাশরাফিকে তো অবশ্যই, তবে কুমিল্লা সম্ভবত বেশ মিস করবে রংপুর রাইডার্সে যোগ দেয়া  অধিনায়ক মাশরাফিকে। দলকে এক সুতোয় বেঁধে রাখতে পারে এমন অনুপ্রেরণাদায়ী অধিনায়ককে যেকোনো দলই মিস করবে!

আলো কাড়তে পারেন স্থানীয় যেই নবীন

স্থানীয় তরুণদের মধ্যে আলাদা করে চোখ রাখতে পারেন বাঁহাতি পেসার মেহেদী হাসান রানার উপর। মেহেদী মিরাজদের সাথে অনূর্ধ্ব ১৯ পর্যায়ে ক্রিকেট খেলা পেসার রানার মধ্যে ভবিষ্যতের সম্ভাবনা দেখতে পাচ্ছেন অনেকেই। কখনো টি-২০ ক্রিকেট না খেলা রানার ফার্স্ট ক্লাস পরিসংখ্যানও খুব একটা উজ্জ্বল নয়। কিন্তু কে জানে, সালাউদ্দিনের সংস্পর্শে এসে এই রানাই হয়তো মেলে ধরবেন নিজেকে !

স্কোয়াড

তামিম ইকবাল (অধিনায়ক) , ইমরুল কায়েস , লিটন দাস , মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন , আল-আমিন হোসেন , আরাফাত সানি , অলক কাপালি , মেহেদী হাসান , মেহেদী হাসান রানা , এনামুল হক , রকিবুল হাসান , ডোয়েইন ব্রাভো , ড্যারেন ব্রাভো , মারলন স্যামুয়েলস , রাশিদ খান , ফখর জামান , শোয়েব মালিক , ফাহিম আশরাফ , হাসান আলী , সলোমন মিরে , মোহাম্মদ নবী , ইমরান খান জুনিয়র , জস বাটলার , কলিন মানরো , রুম্মান রাইস , গ্রায়েম ক্রেমার ।