এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লীগ মাতাতে পারেন যেসব তরুণ ফুটবলার - প্রিয়লেখা

এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লীগ মাতাতে পারেন যেসব তরুণ ফুটবলার

Sanjoy Basak Partha
Published: September 15, 2017

মেসি-রোনালদোরা আছেন বরাবরের মতই। যথারীতি জোড়া গোল করেই তাদের এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লীগ অভিযান শুরু করেছেন দুই মহাতারকা। গোল পেয়েছেন সার্জিও আগুয়েরো, হ্যারি কেইন, গ্যাব্রিয়েল হেসুসদের মত তারকারাও। তবে প্রতি মৌসুমেই চেনা তারকাদের ভিড়ে জ্বলজ্বল করে জ্বলেন নতুন কিছু তারা। এবারের মৌসুমে সেই তারারা কারা হতে পারেন, দেখে নেয়া যাক এক নজরে।

এমিল ফোর্সবার্গ- আরবি লেইপজিগ

ইউরোপের শীর্ষ ৫ লিগের অন্যতম তরুণ সৃজনশীল ফুটবলার ভাবা হচ্ছে এমিল ফোর্সবার্গকে। বুন্দেসলিগায় সম্প্রতি ফ্রেইবুর্গকে ৪-১ গোলে হারিয়েছে লেইপজিগ, সেই জয়ে একটি অ্যাসিস্ট করেছেন ফোর্সবার্গ। এই নিয়ে বুন্দেসলিগায় ২৮ টি ম্যাচে লেইপজিগের হয়ে শুরুর একাদশে মাঠে নেমেছেন ফোর্সবার্গ, তার মধ্যে করে ফেলেছেন ২০টি অ্যাসিস্ট!

২৫ বছর বয়সী এই উইঙ্গারের পেছনে ইউরোপের অনেক বড় ক্লাবই লেইপজিগের কাছে প্রস্তাব পাঠিয়েছিল, কিন্তু চুক্তির মেয়াদ পূর্ণ না করে অন্য কোন ক্লাবে যেতে চান না বলে ফোর্সবার্গ নিজেই সেগুলো মানা করে দিয়েছেন।

প্রথমবারের মত চ্যাম্পিয়ন্স লীগ খেলতে আসা লেইপজিগের অন্যতম ভরসা যে ফোর্সবার্গ, তা বুঝিয়ে দিয়েছেন মোনাকোর বিপক্ষে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের প্রথম ম্যাচেই। গতবারের সেমিফাইনালিস্ট মোনাকোর সাথে ফোর্সবার্গের গোলেই ১-১ এ ড্র করেছে নবাগত লেইপজিগ। প্রতিভা অনুযায়ী খেলতে পারলে আগামী ট্রান্সফার উইন্ডোতে ফোর্সবার্গকে নিয়ে টানাটানি শুরু হয়ে যেতে পারে!

হোয়াকিন কোরেয়া- সেভিয়া

সিরি আ তে সাম্পদোরিয়ার হয়ে খেলেছেন, এখন খেলছেন সেভিয়ার হয়ে লা লিগায়। ২৩ বছর বয়সী এই আর্জেন্টাইন এবার অপেক্ষায় আছেন চ্যাম্পিয়ন্স লীগেও নিজের আগমনী বার্তা জানানোর। আর সে পথে শুরুটাও ভালই করেছেন। শক্তিশালী লিভারপুলের বিপক্ষে ২-২ গোলে ড্র ম্যাচে দলের হয়ে শেষ গোলটি করেছেন কোরেয়া। লীগে এই মৌসুমে এখনো পর্যন্ত মাত্র ১১ মিনিট খেলার সুযোগ পেয়েছেন, সেভিয়া কোচ এডুয়ার্দো বেরিজ্জো নিশ্চয়ই তার এই তরুণ অস্ত্রকে আরও বেশি সুযোগ দিতে চাইবেন।

গ্যাব্রিয়েল বারবোসা- বেনফিকা

অনেক শোরগোল ফেলে গত মৌসুমে ইন্টার মিলানে যোগ দিয়েছিলেন ‘গাবিগোল’ খ্যাত বারবোসা। কিন্তু প্রত্যাশা মেটাতে পারেননি একেবারেই। এই মৌসুমে তাই ধারে যোগ দিয়েছেন বেনফিকায়। নিজেকে প্রমাণের তাই আরেকটা সুযোগ পাচ্ছেন এই ব্রাজিলিয়ান।

২১ বছর বয়সী এই ফুটবলারকে নিয়ে সান্তোসে থাকাকালীন সময় থেকেই ব্যাপক উন্মাদনার শুরু। অনেক প্রত্যাশা নিয়ে ইন্টার তাকে দলে ভেরালেও প্রথম মৌসুমে অন্তত সেই প্রত্যাশার প্রতিদান দিতে পারেননি। প্রায় একই সময়ে বারবোসা ও গ্যাব্রিয়েল হেসুসকে নিয়ে উন্মাদনা শুরু হয়েছিল, হেসুস যেখানে এরই মধ্যে ম্যানচেস্টার সিটি ও ব্রাজিলের হয়ে আলো ছড়াতে শুরু করেছেন, বারবোসা সেখানে এখনো নিজেকে ঠিকভাবে মেলে ধরতে পারেননি। বারবোসার জন্য সেরা সুযোগ হতে পারে এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লীগ। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, বাসেল ও সিএসকে মস্কোর সাথে এক গ্রুপ থেকে পরের পর্বে উঠতে বারবোসার উপর ভরসা করবে বেনফিকা।

প্রেসনেল কিমপেম্বে- পিএসজি

প্রথম আলোচনায় এসেছিলেন গত মৌসুমে বার্সেলোনাকে ৪-০ গোলে হারানো ম্যাচ দিয়ে। নিখুঁত টেকনিকের সাথে পাস দেয়ার দূরদৃষ্টি, সব মিলিয়ে ফ্রান্স অনূর্ধ্ব ২১ দলের এই ডিফেন্ডার পিএসজির মূল টিমে নিয়মিত হয়ে উঠছেন ধীরে ধীরে। বায়ার্ন মিউনিখ, সেল্টিক ও আন্ডারলেখটের সাথে কঠিন গ্রুপে পড়ায় নিজের সামর্থ্যের ভালো পরীক্ষাই দিতে হবে কিমপেম্বেকে।

রদ্রিগো বেনটাঙ্কার- জুভেন্টাস

সাবেক বোকা জুনিয়র্স স্টার রদ্রিগো বেনটাঙ্কার এবার মাঠ মাতাবেন ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়ন জুভেন্টাসের হয়ে। বার্সেলোনার সাথে ম্যাচে ইঞ্জুরড ক্লদিও মার্কিসিওর জায়গায় খেলেছেন মিরালেম পিয়ানিচের সাথে জুটি বেঁধে। উরুগুয়ে অনূর্ধ্ব ২০ দলের এই ফুটবলারের কাছে ভালো কিছুই প্রত্যাশা করবে জুভেন্টাস।

টম রজিক- সেল্টিক

বায়ার্ন ও পিএসজির সাথে একই গ্রুপে থেকে পরের পর্বে যাওয়া কতটা কঠিন, তা সেল্টিক ফ্যানেরা ভালই বুঝবেন। পরের রাউন্ডে যাওয়ার তাদের স্বপ্নের মূল কাণ্ডারি হতে পারেন মিডফিল্ডার টম রজিক। দারুণ পজিশনিং সেন্স দিয়ে এরই মধ্যে নজর কেড়েছেন ২৪ বছর বয়সী রজিক। সেল্টিক পরের রাউন্ডে উঠতে না পারলেও তাই রজিকের দিকে আলাদা করে নজর রাখতে পারেন এবার।

 

টিমো ওয়ার্নার- আরবি লেইপজিগ

এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লীগের সত্যিকারের তারকা হয়ে উঠতে পারেন জার্মান ক্লাব লেইপজিগের ২১ বছর বয়সী এই স্ট্রাইকার। নিজের সামর্থ্যের প্রমাণ খুব ভালোভাবেই দেখিয়েছেন এবারের কনফেডারেশন্স কাপে। লেইপজিগের এমন রূপকথার মত উত্থানে সবচেয়ে বড় অবদান বোধহয় স্টুটগার্টের এই তরুণেরই। গত মৌসুমে লীগে ২৮ ম্যাচে ২১ গোল করেছেন! সব মিলিয়ে লেইপজিগের হয়ে ৩৪ ম্যাচে করেছেন ২৪ গোল। অভিষেক হয়ে গেছে জার্মান জাতীয় দলেও, সেখানেও দুর্দান্ত ওয়ার্নার। ৮ ম্যাচে এরই মধ্যে করে ফেলেছেন ৬ গোল। লিভারপুল, মাদ্রিদের মত ক্লাব তাকে নজরে রেখেছে। এই চ্যাম্পিয়ন্স লীগে তাই নিজের প্রতিভার ঝলক দেখাতেই পারেন ওয়ার্নার।

গোল ডট কম অবলম্বনে